খেলার মাঠে সবার আগে
Nsports-logo

মঙ্গলবার, ২৫শে জুন ২০২৪

সরদার প্যাটেল স্ট্যাডিয়ামঃ লাখের উপর দর্শক যেখানে একসাথে খেলা দেখতে পারে

0

ভেবে দেখুন তো একবার, এক মাঠে একসাথে খেলা দেখছে লাখের উপর দর্শক। হ্যাঁ, এতো বিশাল ধারণক্ষমতাসম্পন্ন ভারতের আহমেদাবাদে অবস্থিত সরদার প্যাটেল স্ট্যাডিয়াম। ভারত-ইংল্যান্ডের টেস্ট ম্যাচ দিয়ে সংস্কার পরবর্তী সময়ে প্রথম আন্তর্জাতিক অঙ্গনে পা রাখার কথা এই ভেন্যুর।

‘মোতেরা’ স্ট্যাডিয়াম নামেও পরিচিত এই মাঠ যাত্রা শুরু করে ১৯৮০র দশকের শুরুতে। সম্প্রতি এর সংস্কার কাজ শেষ হলে, নতুন স্ট্যাডিয়ামের দর্শক ধারণক্ষমতা দাঁড়ায় ছয় অঙ্কের ঘরে।

করোনা পরিস্থিতি মাথায় রেখে ভারত-ইংল্যান্ড টেস্টে অবশ্য ধারণক্ষমতার অর্ধেক দর্শককে প্রবেশের অনুমতি থাকবে। কিন্তু, ২০১৪ সালের পর এই শহরে প্রথম কোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচ দেখার স্বাদ থেকে বঞ্চিত হতে চাননি, শহরবাসীরা। ফলে দ্রুতই বিক্রি হয়ে গেছে সব টিকেট।

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি জানান, ‘আহমেদাবাদের দিবা-রাত্রি টেস্ট ম্যাচের সব টিকেটই বিক্রি হয়ে গেছে। বিক্রি হয়ে গেছে এর পরের টি-টুয়েন্টির টিকেটও।  ক্রিকেটে স্বাভাবিকতা ফিরে আসছে দেখে, আমরা আনন্দিত। আমরা প্রত্যেকটা সিট পূর্ণ দেখতে চাই।”

দিবা-রাত্রি টেস্ট আয়োজন নিয়ে শুরুতে কিছুটা অমত থাকলেও, প্রিন্স অব  কলকাতা অবশ্য বলেই রেখেছেন, প্রত্যেক হোম সিরিজে একটা করে দিবা-রাত্রি টেস্ট ম্যাচ আয়োজনের কথা ভাবছেন তারা।

“প্রত্যেক প্রজন্ম একেকটা পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে যায়। গোলাপি বলের খেলা টেস্ট ম্যাচের প্রধান পরিবর্তনের মধ্যে একটা।”

“প্রত্যেক প্রজন্ম একেকটা পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে যায়। গোলাপি বলের খেলা টেস্ট ম্যাচের প্রধান পরিবর্তনের মধ্যে একটা।” – সৌরভ গাঙ্গুলি

ভারত-ইংল্যান্ড দুই দলই অবশ্য এখানে অনুশীলন করে গেছে এক সপ্তাহ আগেই। এই টেস্টও অবশ্য ভারতের মাটিতে মাত্র দ্বিতীয় দিবা-রাত্রির ম্যাচ।

ক্রিকেটে সর্বোচ্চ দর্শক ধারণের বিষয়ে খুব বেশি অফিশিয়াল রেকর্ড না থাকলেও, বলা হয়ে থাকে ৯০-এর দশকে কলকাতার ইডেন গার্ডেনসে এক লাখের চেয়ে বেশি দর্শক ও মেলবোর্নের এমসিজিতে ৯০ হাজারেরও বেশি দর্শক এক সাথে খেলা  উপভোগ করতো।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy