খেলার মাঠে সবার আগে
Nsports-logo

রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি ২০২৪

পরাজয়ে সিরিজ শুরু বাংলাদেশের

বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে নিউজিল্যান্ডের কাছে তিন ম্যাচের সিরিজের প্রথমটিতে ৪৪ রানে হারলো বাংলাদেশ। রোববার ডানেডিনে সিরিজের প্রথম ওয়ানডের বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচটি ৩০ ওভারে নেমে আসে। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ২৩৯ রান করে কিউইরা। ডিএলএস মেথডে ২৪৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে নাজমুল হোসেন শান্তর দল ২০০ রানেই গুটিয়ে যায়।
emme marella outlet
outlet gabs
outlet marella
harmont&blaine
outlet gabs borse
benetton outlet online shop
marella outlet online
la milanesa borse inverno 2022
la milanesa bag
marella saldi 2023
geox sito ufficiale saldi
harmont e blaine saldi 70
outlet la milanesa
negozi geox piu vicino a me
portafoglio mandarina duck outlet

টসে জিতে ফিল্ডিয়ের সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ। ইনিংসের প্রথম ওভারে দুই উইকেট হারানো নিউজিল্যান্ডকে বড় সংগ্রহ এনে দেওয়ার মূল কৃতিত্ব টম ল্যাথাম ও উইল ইয়াংয়ের। তৃতীয় উইকেট জুটিতে দুজন যোগ করেন রান ১৭১ রান। ল্যাথামকে ৯২ রানে ফিরিয়ে এই জুটি ভাঙেন মেহেদী হাসান মিরাজ। তবে মার্ক চ্যাপম্যানকে নিয়ে বাংলাদেশের বোলারদের ওপর দিয়ে ঝড় বইয়ে দেন ইয়াং। চতুর্থ উইকেটে মাত্র ২২ বলের জুটিতে দুজন তোলেন ৫৪ রান। ১১ বলে ২ ছক্কা ও এক চারে ২০ রান করে রানআউট হয়েছেন চ্যাপম্যান। তবে ইয়াং থামেন ওয়ানডে ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি পূর্ণ করে। রানআউট হওয়ার আগে ৮৪ বলে ১৪ চার ও ৪ ছক্কায় ১০৫ রান করেছেন এই ওপেনার। এরপর রানআউটে আরো দুই উইকেট হারিয়েছে নিউজিল্যান্ড। শেষ ১০ ওভারে ১২৮ রান করেছে স্বাগতিকরা। বাংলাদেশের হয়ে শরিফুল ইসলাম দুটি উইকেট নিয়েছেন।

২৪৫ রানের বড় লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই ধুঁকেছে বাংলাদেশ দল। প্রথম ওভারেই ফেরেন সৌম্য সরকার। অ্যাডাম মিলনের বলে স্লিপে টম ল্যাথামের বলে ক্যাচ দিয়ে কোনো রান না করেই আউট হন এই বাঁহাতি ওপেনার। এরপর দ্বিতীয় উইকেটে নাজমুল হোসেন শান্তর সঙ্গে এনামুল হক বিজয়ের ৪৬ রানের জুটি যখন কিছুটা স্বস্তি দিচ্ছিলো ঠিক তখনি তখন ইশ সোধির বলে বোল্ড হয়েছেন নাজমুল। সাজঘরে ফেরার আগে ১৫ রান করেছেন তিনি। তৃতীয় উইকেটে এনামুলের সঙ্গে লিটন দাসের জুটিটাও বড় হওয়ার আগে ভেঙেছে। জশ ক্লার্কসনের শর্ট বলে পুল করতে গিয়ে খাড়া ওপরে ক্যাচ তুললেন এনামুল, নিজেই সে ক্যাচ নিয়েছেন ক্লার্কসন। ৩৯ বলে ৪৩ রানে থেমেছে এই ওপেনারের ইনিংস। ক্লার্কসনের পরের ওভারে উইকেটকিপারের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন দারুণ খেলতে থাকা লিটনও। ১৯ বলে ২২ রান করেছেন তিনি। এরপর রাচিন রবীন্দ্রর বলে ৪ রান করে আউট হয়েছেন অভিজ্ঞ মুশফিকুর রহিমও।

১০৩ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ফেলার পর কিছুটা লড়াই জমিয়ে তোলেন আফিফ হোসেন ও তাওহিদ হৃদয়। দুজনের ৫৬ রানের জুটি ম্যাচ জয়ের আশাও জাগিয়ে তুলেছিল। কিন্তু ৩৩ রানে তাওহিদ আউট হলে ম্যাচের ভাগ্য অনেকটা নিশ্চিত হয়ে যায়। জ্যাকব ডাফির বলে আফিফের ইনিংসও থামে ৩৮ রানে। এরপর আর বেশি এগোয়নি বাংলাদেশের ইনিংস, ৯ উইকেটে ২০০ রানে থামে তারা। অ্যাডাম মিলনে, জশ ক্লার্কসেন ও ইশ সোধি ২টি করে উইকেট নিয়েছেন।

বিস্তারিত স্কোরের লিংক

 

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy