খেলার মাঠে সবার আগে
Nsports-logo

রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি ২০২৪

গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে সেমিফাইনালে বাংলাদেশের যুবারা

গতকাল বুধবার দুবাইতে অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপের ‘বি’ গ্রুপের ম্যাচে লঙ্কানদেরbenetton outlet online
outlet mandarina duck online
geox outlet online
scarpe geox uomo outlet
geox outlet online
outlet mandarina duck online
benetton outlet online shop
harmont&blain
comprare gioielli a istanbul
negozio harmont e blaine
costa calzature
geox outlet donna
cains moore
benetton outlet online
le gioie di gea
৬ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশ। টস হেরে আগে ব্যাটিংয়ে নেমে পুরো ৫০ ওভার খেলে ৯ উইকেটে কেবল ২০০ রান করতে পারে শ্রীলঙ্কা। জবাবে ৫৫ বল হাতে রেখে ৪ উইকেটে ২০৪ রান তুলে জয় নিশ্চিত করে লাল-সবুজ জার্সিধারীরা। সংযুক্ত আরব আমিরাত ও জাপানকে হারিয়ে অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপের সেমিফাইনাল প্রায় নিশ্চিত করে ফেলেছিল বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। এই ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই শেষ চার নিশ্চিত করল তারা।

টসে হেরে শ্রীলঙ্কার ইনিংসের শুরুটা ইতিবাচক ছিল। পুলিন্দু পেরেরা ও রবিশান ডি সিলভা উদ্বোধনী জুটিতে ৩৭ রান যোগ করেছিলেন। বাঁহাতি পেসার মারুফ মৃধা নবম ওভারে এসে পেরেরাকে বোল্ড করে ভাঙেন সে জুটি। ২৯ বলে ২৮ রানে থামে পেরেরার ইনিংস। তিনে নামা লঙ্কান অধিনায়ক সিনেত জয়াবর্ধনের ইনিংসের শুরুটাও ভালো ছিল। ডি সিলভার সঙ্গে ৩৭ রানের জুটি গড়েন তিনি। তবে মাঝের ওভারে বোলিংয়ে এসে ইনিংসের চেহারা পাল্টে দেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহফুজুর ও লেগ স্পিনার ওয়াসি সিদ্দিকী। মাহফুজুরের বাঁহাতি স্পিনে ৩৭ বলে ২১ রান করে বোল্ড হন রবিশান। জয়াবর্ধনেও (৩০ বলে ২৫ রান) তাঁর শিকার।

দিনুরা কালুপাহানা ও রুসান্দা গামাগের ৩৫ রানের জুটিতে ধাক্কাটা কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করলেও শ্রীলঙ্কা সেটি পারেনি। ২৯তম ওভারে কালুপাহানা (৩৯ বলে ২০ রান) ও মালশা থারুপতিকে পরপর দুই বলে আউট করে হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনাও তৈরি করেন ওয়াসি। হ্যাটট্রিক না হলেও আরেক থিতু ব্যাটসম্যান রুসান্দা গামেগেকে (৪৬ বলে ২৪ রান) আউট করেন তিনি। ১১৮ রানে ৫ উইকেট হারানোর পর আর বেশি দূর যেতে পারেনি শ্রীলঙ্কা। উইকেটকিপার শারুজান শানমুগানাথান (২১), বিশ্ব লাহিরু (২৫) ও রুভিশান পেরেরার (১৯) ইনিংসে ৫০ ওভার ব্যাটিং করলেও ২০০ রানেই থামে শ্রীলঙ্কা। ৩২ রানে ৩ উইকেট নেন ওয়াসি সিদ্দিক, মাহফুজুর ও মারুফ নেন ২টি করে উইকেট।

রান তাড়ায় বাংলাদেশের শুরুটা অবশ্য ভালো হয়নি। জিশান আলম ইনিংসের প্রথম ওভারে কোনো রান না করে আউট হন গারুকা সানকেথের বলে। তবে আশিকুর শেষ পর্যন্ত থাকায় পথ হারায়নি বাংলাদেশ। তিনে নামা চৌধুরী মোহাম্মদ রিজওয়ানের সঙ্গে তিনি ৭৪ রানের জুটি গড়ে জয়ের ভিত গড়েন। রিজওয়ান ৩২ রান করে আউট হলেও আরিফুল ইসলাম (১৮) ও আহরার আমিনের (২৩) সঙ্গে আরও দুটি জুটি গড়ে এগিয়ে যান আশিকুর। ১১৯ বলে শতকও পূর্ণ করেন এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান। শেষ পর্যন্ত ১৩০ বলে ১১৬ রানের অপরাজিত ইনিংসে মারেন ১১টি চার ও ২টি ছক্কা।

 

বিস্তারিত স্কোরের লিংক

 

 

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy