খেলার মাঠে সবার আগে
Nsports-logo

শনিবার, ২০শে জুলাই ২০২৪

আইসিসি ডিমেরিট পয়েন্ট দিলো মিরপুরের পিচকে

বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যে অনুষ্ঠিত ২য় টেস্টের ভেন্যু মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের পিচকে ‘অসন্তোষজনক’ বলে উল্লেখ করেছে আইসিসি। আইসিসির পিচ ও আউটফিল্ড পর্যবেক্ষণ প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে মিরপুরকে একটি ডিমেরিট পয়েন্টও দেওয়া হয়েছে। এই ডিমেরিট পয়েন্ট থাকবে পাঁচ বছরের জন্য। এর মধ্যে ৬টি ডিমেরিট পয়েন্ট পেলে এক বছরের জন্য এই মাঠে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট আয়োজনে নিষেধাজ্ঞা আসবে।
la milanesa borse nuova collezione
and camicie catalogo
harmont & blaine outlet donna
geox outlet donna
and camicie catalogo
borse la milanesa inverno 2023
benetton uomo saldi
borse marella outlet
geox saldi 80
outlet mandarina duck online
geox.it saldi
zaini gabs outlet
collane marella
benetton saldi online
marella monochrome

গতকাল এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আইসিসি জানিয়েছে, ম্যাচ অফিশিয়ালদের উদ্বেগের পরিপ্রেক্ষিতে এবং দুই অধিনায়কের সঙ্গে আলোচনার পর আইসিসির কাছে নিজের প্রতিবেদন জমা দেন ম্যাচ রেফারি ডেভিড বুন। তাতে তিনি বলেছেন, ‘আউটফিল্ড বেশ ভালো ছিল, বৃষ্টির পরও দারুণভাবে টিকে ছিল। কিন্তু মনে হয়েছে পিচ হয়তো ঠিকঠাকভাবে প্রস্তুত নয়। এটি শক্ত ছিল না, প্রথম দিন থেকেই ঘাসের ছিটায় ঢাকা ছিল।’

এরপর বুন বলেন, ‘প্রথম সেশন থেকে পুরোটা ম্যাচেই বাউন্স অসম ছিল, অনেক বল পিচ থেকে লাফিয়ে উঠেছে। সামনে গিয়ে খেলতে থাকা ব্যাটসমেনের কাঁধের ওপর উঠেছে স্পিনারদের বল, এরপর মাঝেমধ্যে বেশ নিচুও হয়েছে।’

আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী, পুরুষ ও নারী ক্রিকেটে প্রতিটি আন্তর্জাতিক ম্যাচের পর পিচ ও আউটফিল্ডকে বিভিন্ন রেটিং দেওয়া হয়। সাধারণত খুব ভালো, ভালো, গড়পড়তা, গড়পড়তার নিচে, বাজে ও অনুপযুক্ত—এসব শ্রেণিতে ভাগ করা হয় পিচ ও আউটফিল্ডকে। একটি নির্দিষ্ট মানের নিচে পিচ বা আউটফিল্ড পড়লে দেওয়া হয় ডিমেরিট পয়েন্ট। অসন্তোষজনক হলে দেওয়া হয় একটি ডিমেরিট পয়েন্ট, খেলার অনুপযুক্ত হলে তিনটি।

এর আগে ২০১৮ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্টের পর মিরপুরের ‘গড়পড়তার নিচে’ বলে একটি ডিমেরিট পয়েন্ট দিয়েছিল আইসিসি। সেবার ৩৮টি উইকেটের মধ্যে ৩০টিই নিয়েছিলেন স্পিনাররা। ঐবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) আপিল করলেও সে সিদ্ধান্ত বহাল রাখা হয়েছিল। এবার আইসিসির দেওয়া সিদ্ধান্তের বিপক্ষে আপিল করতে চাইলে সেটি ১৪ দিনের মধ্যে করতে হবে বিসিবিকে।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy