খেলার মাঠে সবার আগে
Nsports-logo

রবিবার, ২১শে এপ্রিল ২০২৪

বিপিএলের প্রথম ম্যাচেই চ্যাম্পিয়ন কুমিল্লার হার

বিপিএলের সবচেয়ে সফল ফ্রাঞ্চাইজি কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স নাকি প্রথম ম্যাচ জিততেই চায় না। তারা চায় হেরে যেতে। এই হারটা নাকি তাদের জন্য সৌভাগ্যের!

অবাক করা হলেও, এমন কথাই দুর্দান্ত ঢাকার কাছে প্রথমে ম্যাচে ৫ উইকেটে হারের পর সংবাদ সম্মেলনে এসে অকপটে স্বীকার করলেন কুমিল্লার অধিনায়ক লিটন দাস। বললেন, তাদের কোচও (সালাউদ্দিন) নাকি চেয়েছিলেন প্রথম ম্যাচ হেরে যাওয়াটা দলের জন্য ভালো।

সফল অধিনায়ক ইমরুল কায়েসকে সরিয়ে এবার কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের দায়িত্ব দেয়া হয় লিটন দাসকে। যদিও ইমরুল দলে রয়েছেন এবং আজ ভালো ব্যাটিংও করেছেন। ৬৬ রান করে দলকে লড়াকু পুঁজি এনে দেয়ার চেষ্টা করেন। নতুন অধিনায়ক হিসেবে প্রথম ম্যাচেই হারটা কষ্টের কি না? জানতে চাইলে লিটন বলেন, ‘দেখেন, প্রত্যেকটা হারই তো কষ্টের। প্রথমবার অধিনায়কত্ব করছি, আমি তো চাইবো প্রথম ম্যাচ জিততে। এদিকে দিয়ে তো অবশ্যই খারাপ লাগবে যে, হেরে গেছি প্রথম অধিনায়কত্বের ম্যাচে। একই সঙ্গে মনের ভিতর এটাও থাকে যে, কুমিল্লা তো সবসময়ই প্রথম ম্যাচ হারে। ’

এ সময়ই প্রসঙ্গ ওঠে, গতবারও টানা তিন ম্যাচ হেরেছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। এরপর চ্যাম্পিয়ন হয়েছে তারাই। এর আগেও অনেকবার প্রথম ম্যাচ হেরে গিয়েও শেষ পর্যন্ত চ্যাম্পিয়ন হয়েছে তারাই। তো এবারও প্রথম ম্যাচ হেরে যাওয়াটাও কী সৌভাগ্যের কি না। লিটন দাস বলেন, ‘আমি স্যারের (সালাউদ্দিন) সঙ্গে সেদিনও কথা বলছিলাম, স্যার বলছিল, আমরা প্রথম ম্যাচ এমনেই হেরে যাই। আর হারলেই নাকি স্যারের জন্য লাকি। ‘

তবে, হারলেও ভিন্ন একটি দৃষ্টিতে ভালো হয়েছে কুমিল্লার জন্য। দলের খেলোয়াড়দের দেখে নিতে পেরেছেন। আগামী ম্যাচের জন্য নিজেদের প্রস্তুত করারও সুযোগ পেয়েছে তারা। লিটন বলেন, ‘একটা জিনিস আমাদের ভালো হইছে যে, একটা মোটামুটি স্কোর করেও… বোলাররা আমাদের দেখিয়েছে যে আমরাও পারি। আমরা পুরো দলটা দেখতে পারলাম, কোন জায়গায় ল্যাকিংস আছে, কোন জায়গায় স্ট্রং। এখন আমরা বসে আলোচনা করে জিনিসটা তৈরি করতে পারবো। দ্বিতীয় ম্যাচ থেকে আশা করি ভালো কিছু হবে। ’

সংক্ষিপ্ত স্কোর

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস: ২০ ওভারে ১৪৩/৬ (লিটন ১৩, ইমরুল ৬৬, হৃদয় ৪৭, খুশদিল ১৩, জাকের আলী ০*, রোস্টন চেজ ০, মাহিদুল ০ ; তাসকিন ২/৩০, শরীফুল ৩/২৭, আরাফাত ০/২৫, চতুরাঙ্গা ১/২২, উসমান ১/২৮, গুনাতিলকা ০/৯)

দুর্দান্ত ঢাকা: ১৯.৩ ওভার ১৪৭/৫ (গুনাতিলকা ৪১, নাঈম ৫২, ক্রুসপুল্লে ৫, ইরফান ২৪, সাইফ ৭, মোসাদ্দেক ১*, চতুরাঙ্গা ৬* ; ফোর্ড ০/২৫, মুশফিক ০/১৯, চেজ ০/১৮, তানভীর ২/২৭, মোস্তাফিজ ২/৩১, হদয় ০/৪, খুশদিল ১/১২)।

ফল: দুর্দান্ত ঢাকা ৫ উইকেটে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: শরীফুল ইসলাম (দুর্দান্ত ঢাকা)।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy