খেলার মাঠে সবার আগে
Nsports-logo

রবিবার, ২১শে এপ্রিল ২০২৪

ভারতীয় অধিনায়ক কি নিয়মের বাইরে সুবিধা পেয়েছেন?

দ্বিতীয় সুপার ওভারে রোহিতের ব্যাটিং কি বৈধ ছিল

বেঙ্গালুরুতে বুধবার এই লড়াইয়ের মূল ম্যাচ ‘টাই’ হওয়ার পর সুপার ওভারও ‘টাই’ হয়। পরে দ্বিতীয় সুপার ওভারে ম্যাচ জিতে নেয় ভারত।

প্রথম সুপার ওভারে ১৭ রান তাড়ায় আজমাতউল্লাহ ওমারজাইয়ের বলে দুটি ছক্কা মেরে পঞ্চম বলে সিঙ্গেল নেন রোহিত। শেষ বলে প্রয়োজন পড়ে ২ রানের। নন-স্ট্রাইক প্রান্তে থাকা রোহিত তখন ক্রিজ ছেড়ে চলে যান। তার জায়গায় নামেন রিঙ্কু সিং। উদ্দেশ্যটা পরিষ্কার, শেষ বলে নন-স্ট্রাইক প্রান্তে থাকা ব্যাটসম্যানের কাজ যেহেতু শুধু দৌড়ানো, তাই তুলনামূলক দ্রুত দৌড়াতে পারা রিঙ্কুকে নামায় ভারত।

কোনো চোট-টোট ছিল না, নিয়ম অনুযায়ী তাই রোহিত রিটায়ার্ড আউট।

শেষ বলে ভারত নিতে পারে ১ রান, তাই সুপার ওভারও ‘টাই’ হয়। ম্যাচ গড়ায় দ্বিতীয় সুপার ওভারে।

আইসিসির প্লেয়িং কন্ডিশন অনুযায়ী, আগের সুপার ওভারে আউট হওয়া ব্যাটসম্যান ও বল করা বোলার পরের সুপার ওভারে আবার ব্যাটিং বা বোলিং করতে পারবেন না।

কিন্তু ভারতের হয়ে আবার ব্যাটিংয়ে নামতে দেখা যায় রোহিতকে। ফারিদ আহমাদের প্রথম দুই বলেই তিনি ছক্কা ও চার মারেন। সেই সুপার ওভার জিতে পরে ম্যাচ জিতে নেয় ভারত।

দ্বিতীয় সুপার ওভারের নিয়মটি নিয়ে ধোঁয়াশা ছিল ধারাভাষ্যকারদের মধ্যেও। তারা বারবার বলছিলেন, আগের ওভারে বল করা বোলার যদি আবার বোলিং করতে না পারে, তাহলে ব্যাটসম্যান কেন পারবে? নিয়মটা তো দুই ক্ষেত্রেই একই থাকা উচিত। তারা বিস্ময় প্রকাশ করছিলেন। ধারাভাষ্যকার সাইমন ডুল তখন ফুটবলের উদাহরণও দেন যে, টাইব্রেকারে একবার কিক নেওয়া ফুটবলার আর কিক নিতে পারেন না।

ম্যাচ অফিসিয়ালরা এখনও পর্যন্ত পরিষ্কার করেননি, রোহিত রিটায়ার্ড হার্ট ছিলেন নাকি রিটায়ার্ড আউট।

তবে ম্যাচ শেষে ভারতীয় কোচ রাহুল দ্রাবিড় সরাসরিই বলেন, রোহিতের বেরিয়ে যাওয়া ছিল কৌশলের অংশ। যেটির মানে, তিনি ইচ্ছে করে বেরিয়ে গেছেন, মানে রিটায়ার্ড আউট।

আফগানিস্তানের কোচ জোনাথন ট্রট ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে জানান, দ্বিতীয় সুপার ওভারে ওমারজাইকে দিয়েই বোলিং করানোর ইচ্ছে ছিল তাদের। কিন্তু নিয়মের কারণে পারেননি। ব্যাটসম্যানদের ক্ষেত্র নিয়ম নিয়ে তিনি নিশ্চিত ছিলেন না বলেই জানান। যোগাযোগের ঘাটতির কথা তুলে ধরে তিনি আম্পায়ারদের কাছ থেকে তথ্যপ্রবাহের আরও স্বচ্ছতা দাবি করেন।

আইসিসির কাছ থেকে কোনো ব্যাখ্যা এখনও পর্যন্ত আসেনি। সাধারণত, এসব নিয়ম নিয়ে বিতর্কিত বা আলোচিত কিছু হলে তারা ব্যাখ্যা দেয় পরে। আপাতত অপেক্ষা সেটির জন্যই। সবকিছু পরিষ্কার হতে পারে তখন।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy