খেলার মাঠে সবার আগে
Nsports-logo

সোমবার, ২৭শে মে ২০২৪

আত্মবিশ্বাসী আফগানিস্তানের কাছে ধরাশায়ী পাকিস্তান

আইসিসি বিশ্বকাপের ১৩তম আসরের সোমবারের ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয় চেন্নাইয়ের এমএ চিদাম্বরাম স্টেডিয়ামে। পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের মধ্যকার ম্যাচটি যেন কোন এক রূপকথার গল্পের মত, কারণ এই ম্যাচের আগেও আরো ৭বার মুখোমুখি হয় এই দুই দল। কিন্তু এই ম্যাচে পাওয়া ৮ উইকেটের মহাকাব্যিক জয় যেন আফগানিস্তানের এত দিনের হারের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ।

ম্যাচের শুরুতে টসে জিতে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেয় পাকিস্তান। ব্যাটিংয়ের শুরুটা খুব ভালভাবেই করে পাকিস্তানের দুই ওপেনার আব্দুল্লাহ শফিক ও ইমাম-উল-হক। ১৩৬২ বল পর প্রথম পাওয়ার প্লেতে পাকিস্তানের ছক্কার খরা ঠিকই কাটিয়েছিলেন আবদুল্লাহ শফিক, তবে উইকেট ধরে রেখে ব্যাটিংয়ের পরিকল্পনাটা ঠিকমত করতে পারেননি তারা। উদ্বোধনী জুটির ৫৬ রানের মাথায় আজমতউল্লাহর করা বলে নাভীনের ধরা ক্যাচে সাজঘরে ফিরে যান ইমাম-উল-হক ২২ বলে ১৭ রান করে। এরপরে তিন নাম্বারে ব্যাট করতে নামা বাবর আজম ক্রিজে থিতু হয়ে যান।

অধিনায়ক বাবর আজম শফিককে সাথে নিয়ে ৭৪ বলে ৫৪ রানের জুটি বাঁধেন, দলীয় সংগ্রহ দাঁড়ায় ২২.২ ওভারে এক উইকেটে ১১০ রান। ৭৫ বলে ৫টি চার আর ২টি ছয়ের সাহায্যে ৫৮ রান করে নূর আহমেদের বলে এলবিডাব্লিও হয়ে সাজঘরে ফেরেন আব্দুল্লাহ শফিক। চার নাম্বার পসিশনে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ৮ রান করে সাজঘরে ফিরে যান মোহাম্মদ রিজওয়ান। একের পর এক উইকেট পতনের পরও নিজের কৌশলী ব্যাটিং ধরে রেখে অর্ধশতক হাঁকান পাকিস্তান দলপতি বাবর আজম। ৪১.৫ ওভারে দলীয় ২০৫ রানের মাথায় আউট হবার আগে ৯২ বলে ৭৪ রান করেন বাবর। বিশ্বকাপে তার দ্বিতীয় অর্ধশতক এটি, এর আগে ভারতের বিপক্ষে ৫০ রানের ইনিংস খেলেন তিনি।

পাকিস্তান দলপতির সাজঘরে ফেরার পর সাত নাম্বারে ব্যাট করতে নেমে অনেকটা কাল-বৈশাখীর তান্ডব চালান ইফতেখার আহমেদ। ষষ্ঠ উইকেটে শাদাব খানের সঙ্গে ৪৫ বলে ৭৩ রানের ঝড়ো জুটি গড়েন তিনি। দলীয় ইনিংস শেষ হওয়ার মাত্র ৪ বল আগে ২৭ বলে ২টি চার আর ৪টি ছয়ের সাহায্যে ৪০ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে বিদায় নেন ইফতেখার। ইনিংসের শেষ বলে আউট হন শাদাব খান, ৩৮ বলে ১টি চার আর ১টি ছয়ে তিনি যোগ করেন ৪০ রান। নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে পাকিস্তানের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৭ উইকেটে ২৮২ রান। আফগানিস্তানের হয়ে ৪৯ রানে ৩ উইকেট নেন স্পিনার নুর আহমেদ। ৫২ রানে ২ উইকেট নেন নাভিন উল হক।

পাকিস্তানের দেয়া ২৮৩ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ইনিংসের শুরু থেকেই রীতিমতো তাণ্ডব চালিয়েছেন আফগান দুই ওপেনার রহমানউল্লাহ গুরবাজ ও ইব্রাহিম জাদরান। উদ্বোধনীতে জুটিতে ২১.১ ওভারে ১৩০ রান করেন তারা। রহমানউল্লাহ ৫৩ বলে ৯টি চার আর ১টি ছক্কায় ৬৫ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে সাজঘরে ফিরে গেলে, দ্বিতীয় উইকেটে রহমত শাহের সঙ্গে ৭৪ বলে ৬০ রানের জুটি গড়ে সাজঘরে ফেরেন আরেক ওপেনার ইব্রাহিম জাদরান। আউট হবার আগে ১১৩ বলে ১০টি বাউন্ডারির সাহায্যে করেন ৮৭ রান করেন জাদরান। এরপর রহমত শাহ ও হাশমতউল্লাহ শহিদি তৃতীয় উইকেটে ৯৩ বলে ৯৬ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়ে দলকে জয়ের লক্ষে পৌঁছে দেন। আফগানিস্তানের ঐতিহাসিক জয়ের দুই নায়ক ইব্রাহিম জাদরান ৮৭ এবং রহমত শাহ অপরাজিত ৭৭ রান করেন। পাকিস্তানের হয়ে ১টি করে উইকেট নেন শাহীন শাহ আফ্রিদি এবং হাসান আলী।

এই জয়ের ফলে ৫ ম্যাচের ২টিতে জয় পেয়ে ৪ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের ৬ষ্ঠ স্থানে উঠে এসেছে আফগানিস্তান। অন্যদিকে ৫ ম্যাচে সমান পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের ৫ নাম্বারে থাকা পাকিস্তানের সেমিফাইনালে ওঠার রাস্তাটা কঠিন হয়ে গেল।

স্কোর

https://www.espncricinfo.com/series/icc-cricket-world-cup-2023-24-1367856/afghanistan-vs-pakistan-22nd-match-1384413/live-cricket-score

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy