খেলার মাঠে সবার আগে
Nsports-logo

রবিবার, ২১শে এপ্রিল ২০২৪

ভারতের কাছে হেরে যুব বিশ্বকাপ শুরু বাংলাদেশের

দক্ষিণ আফ্রিকার ব্লুমফন্টেইনে শনিবার ৮৪ রানে হেরেছে বাংলাদেশ। ভারতের ২৫১ রান তাড়ায় তারা গুটিয়ে গেছে কেবল ১৬৭ রানে।

গত মাসে যুব এশিয়ার কাপের শেষ চারে ভারতকে হারিয়েছিল বাংলাদেশ, যেখানে ৪ উইকেট নিয়ে সবচেয়ে বড় অবদান রেখেছিলেন মারুফ। এই প্রতিপক্ষকে পেয়ে এবার তিনি হয়ে ওঠেন আরও ভয়ংকর। ৪৩ রানে ধরেন ৫ শিকার।

মারুফের তোপ সামলে ভারতকে লড়ার মতো সংগ্রহ এনে দেওয়ার কারিগর আদার্শ সিং ও উদয় সাহারান। তৃতীয় উইকেটে দুইজনে গড়েন ১১৬ রানের জুটি। ৬ চারে ৭৬ রান করে ম্যাচ সেরা ওপেনার আদার্শ। ভারত অধিনায়ক উদয়ের ব্যাট থেকে আসে ৪টি চারে ৬৪।

রান তাড়ায় বাংলাদেশ কখনো জাগাতে পারেনি জয়ের সম্ভাবনা। দলের হয়ে একমাত্র ফিফটি আসে শিহাব জেমসের ব্যাট থেকে, ৭ চারে ৫৪। এছাড়া ৩ চারে ৪১ রান করেন আরিফুল ইসলাম। তাদের দুজনের ৭৭ রানের জুটি বাংলাদেশের ইনিংসে সর্বোচ্চ।

বাংলাদেশ শিবিরে ধস নামানোর কাজটি করেন সৌমি পান্ডে। স্রেফ ২৪ রান দিয়ে শুরুতে ও শেষে দুটি করে উইকেট নেন বাঁহাতি এই স্পিনার।

টস জিতে ফিল্ডিং নিয়ে বাংলাদেশের শুরুটা অবশ্য ছিল আশা জাগানিয়া। ৩১ রানে তুলে নেয় তারা প্রতিপক্ষের দুই উইকেট। চতুর্থ ওভারে চমৎকার এক আউট সুইং ডেলিভারিতে আর্শিন কুলকার্নিকে কট বিহাইন্ড করেন মারুফ। একইভাবে কয়েক ওভার পর বাঁহাতি এই পেসারের শিকার মুশির খান।

উদয়কে নিয়ে দলের হাল ধরেন ১৭ রানে বেঁচে যাওয়া আদার্শ। তাদের ব্যাটে বাড়তে থাকে ভারতের রান। দারুণ ব্যাটিংয়ে দুইজনই ফিফটিতে পা রাখেন ৬৭ বলে। তাদের জুটি শতরান স্পর্শ করে ১২১ বলে।

বাংলাদেশের জন্য মাথা ব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়ানো ১৪৪ বল স্থায়ী এই জুটি ভাঙেন চৌধুরী মোহাম্মদ রিজওয়ান; মিড-অফে সহজ ক্যাচ দিয়ে ফেরেন আদার্শ। কয়েক ওভার পর আরেক থিতু ব্যাটসম্যান উদয়ের ইনিংস থামান মাহফুজুর রহমান।

বাংলাদেশ অধিনায়কের পরের ওভারে প্রিয়ানশু মলিয়ার ক্যাচ ধরতে পারেননি পয়েন্ট ফিল্ডার। সেই মলিয়াকে পরে মারুফের বলে শর্ট থার্ড ম্যান থেকে সীমানার দিকে উল্টো দৌড়ে অসাধারণ এক ক্যাচে ফেরান আহরার আমিন। আরাভেলি আভানিশের পর মুরুগান আভিশেককে ফিরিয়ে পাঁচ উইকেট পূর্ণ করেন মারুফ।

রান তাড়ায় আত্মবিশ্বাসী শুরু করেন বাংলাদেশের দুই ওপেনার আশিকুর রহমান শিবলি ও জিশান আলম। জমতে থাকা ৩৮ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙে জিশানের বিদায়ে, পয়েন্টে ঝাঁপিয়ে দারুণ ক্যাচ নেন আভিশেক।

সৌমিকে জায়গা বানিয়ে লেগ সাইডে উড়িয়ে খেলার চেষ্টায় বলের লাইন মিস করে বোল্ড হন তিনে নামা রিজওয়ান। বাঁহাতি স্পিনার নিজের পরের ওভারে স্টাম্প ভেঙে দেন আশিকুরেরও। আর্শিনের বলে আহরার এলবিডব্লিউ হলে ভীষণ চাপে পড়ে বাংলাদেশ।

সেখানে থেকে দলকে কক্ষপথে ফেরানোর চেষ্টা চালান আরিফুল ও জেমস। অনেকটা সময় উইকেটে থেকে লড়াই করেন দুজন। আরিফুলকে কট বিহাইন্ড করে জমে যাওয়া জুটি ভাঙেন মুশির। কয়েক ওভার পর এই স্পিনারই ফেরান ৭৫ বলে ফিফটি করা জেমসকে।

এরপর আর বেশিদূর এগোয়নি বাংলাদেশের ইনিংস। ৪০ রানে শেষ ৬ উইকেট হারিয়ে তারা গুটিয়ে যায় দুইশর অনেক আগে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ভারত অনূর্ধ্ব-১৯ দল: ৫০ ওভারে ২৫১/৭ (আদার্শ ৭৬, আর্শিন ৭, মুশির ৩, উদয় ৬৪, প্রিয়ানশু ২৩, আরাভেলি ২৩, সাচিন ২৬*, আভিশেক ৪, লিমবানি ২*; ইকবাল ৭-০-৩৪-০, মারুফ ৮-১-৪৩-৫, রিজওয়ান ৫-০-২৩-১, রোহানাত ৬-০-৪০-০, পারভেজ ১০-০-৩৯-০, মাহফুজুর ১০-১-৪১-১, আরিফুল ৪-০-২১-০)

বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল: ৪৫.৫ ওভারে ১৬৭ (আশিকুর ১৪, জিশান ১৪, রিজওয়ান ০, আরিফুল ৪১, আহরার ৫, জেমস ৫৪, মাহফুজুর ৪, পারভেজ ১৫*, রোহানাত ০, ইকবাল ০, মারুফ ১; লিমবানি ৮-০-২৫-১, নামান ৫-০-৩১-০, সৌমি ৯.৫-১-২৪-৪, আর্শিন ৫-০-১৯-০, মুশির ১০-১-৩৫-২, আভিশেক ৬-০-২৪-০, প্রিয়ানশু ২-০-৭-১)

ফল: ভারত অনূর্ধ্ব-১৯ দল ৮৪ রানে জয়ী

ম্যান অব দা ম্যাচ: আদার্শ সিং

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy